কুসিক নির্বাচনে বিরামহীন প্রচারণায় দুই মেয়র প্রার্থী

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নির্বাচনের আরও প্রায় দুই সপ্তাহ বাকী। দলীয় প্রতীকে নবগঠিত নির্বাচন কমিশনের (ইসি) প্রথম এ নির্বাচনটি শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে নানা পরিকল্পনা নিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন ও ইসি। এরই মধ্যে ইসির নির্দেশে মাঠ পর্যায়ে পুলিশ ছাড়াও একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা ও রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হয়েছে বিভিন্ন প্রস্তাবনা।

এদিকে, ভোটারদের মন জয় করতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনীত দুই মেয়র প্রার্থী স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে দিনভর নগরীর বিভিন্ন অলি-গলিতে ছুটে বেড়াচ্ছেন। এছাড়া মেয়র পদের প্রার্থীদের মধ্যে বিশেষ করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দলীয় প্রার্থীরা গণসংযোগের পাশাপাশি বিভিন্ন এলাকায় ওঠান বৈঠক করে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। ভোটারদের আকৃষ্ট করতে এলাকার উন্নয়নে প্রার্থীরা দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।

শুক্রবার দিনভর নগরীর বেশ কয়েকটি এলাকায় গণসংযোগ করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আঞ্জুম সুলতানা সীমা। বিকালে ৩টায় নগরীর দ্বিতীয় মুরাদপুর এলাকায় তিনি উঠান বৈঠকে বক্তব্য দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হারুন-অর রশিদ, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত শিকদার, ভিক্টোরিয়া কলেজের সাবেক জিএস মো. জাকির হোসেন, সাবেক ভিপি ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা নুর-উর রহমান মাহমুদ তানিম, মো. আবদুল মমিন, রবিউল আউয়াল, মানিক খন্দকার, মিজানুর রহমান, অহিদুর রহমান, মাজেদুর রহমান, শরীফুল ইসলাম প্রমুখ।

এছাড়াও সীমা নগরীর কাটাবিল ও কান্দিপাড়, বাদুরতলা, রানীরবাজার এলাকায় গণসংযোগ করেছেন। তার পক্ষে নগরীর কয়েকটি স্পটে গণসংযোগ করেছেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামিম, সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ এমপি। বিকালে নগরীর টাউন হল মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জেলা সেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা ঐক্যবব্ধ হয়ে সীমাকে বিজয়ী করার আহ্বান জানান।

এর আগে শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে সদর দক্ষিণ উপজেলার লালমাই সংলগ্ন দ্যূতিয়াপুর গ্রামে পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের গ্রামের বাড়িতে সদর দক্ষিণ উপজেলার  সিটি কর্পোরেশনের ৯ টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ও স্থানীয় পর্যাযের নেতারা মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।। এতে উপস্থিত ছিলেন,আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী এনামুল হক শামীম, অসীম কুমার উকিল। নেতৃবৃন্দ দলীয় মেয়র প্রার্থী সীমাকে বিজয়ী করার জন্য নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে নামার নির্দেশ দেন।

অপরদিকে, বিএনপির মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু নগরীর লক্ষ্মীনগর, ঢুলিপাড়া, রাজাপাড়া এলাকায় গণসংযোগ করেছেন।

এ ছাড়াও সাক্কুর পক্ষে নগরীর দক্ষিণ চর্থা, উত্তর চর্থা, থিরাপুকুর পাড়সহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, খাইরুল কবির খোকন, সাবেক এমপি আব্দুল ওয়াদুদ, শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব গাজী মাজহারুল আনোয়ার, কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল খান, কেন্দ্রীয় মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহম্মেদ, সাবেক এমপি নুরী আরা সাফা, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের জুয়েল ও ডা.জাহিদ, মুজাহিদ চৌধুরী, মাহবুবুল আলম চপল, অ্যাডভোকেট. মোস্তফা জামান জসিম, রেজাউল হক আখি, মমিনুল হক মমিন, সৈয়দ মেরাজ উদ্দিন, ইকরাম হোসেন তাজসহ বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এদিকে, কুসিক নির্বাচনকে সামনে রেখে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় করতে শনিবার কুমিল্লা আসছেন তিন নির্বাচন কমিশনার। বেলা ১১টায় নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, বেগম কবিতা খানম, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী ও কমিশনের সচিব মোহাম্মদ আবদুল্লাহ কুমিল্লা টাউন হল মিলনায়তনে সকল প্রার্থী, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তা, আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্য ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন।

Comments

comments