চান্দিনায় বাসে তল্লাশিকালে পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ

কুমিল্লার চান্দিনায় বাসে তল্লাশিকালে পুলিশকে লক্ষ্য করে হাতবোমা নিক্ষেপ করেছে দুই জেএমবি সদস্য। এসময় হাইওয়ে পুলিশ গুলি চালিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় জেএমবি সদস্য জহির (২৫) ও হাসানকে (২৪) আটক করেছে। মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুটুম্বপুর বাস স্টেশনের অদূরে এ ঘটনা ঘটে। আটকদের মধ্যে জহিরের গলায় ও শরীরের একাধিক স্থানে গুলি লেগেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে পুলিশ প্রহরায় কুমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাইওয়ে পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস দ্রুত গতিতে চান্দিনার কুটুম্বপুর এলাকা অতিক্রমকালে হাইওয়ে পুলিশ বাসটি তল্লাশির সংকেত দেয়। পরে বাসটি ধাওয়া করে পুলিশ আটক করে। বাসটি তল্লাশির আগেই বাস থেকে নেমে দুই জেএমবি সদস্য হাইওয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে হাতবোমা নিক্ষেপ করে মহাসড়কের পাশে খাদঘর এলাকার দিকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

পরে পুলিশ পাল্টা গুলি চালালে জেএমবি সদস্য জহির (২৫) গুলিবিদ্ধ হয়। অপর জেএমবি সদস্য হাসানকে (২৪) জনতার সহায়তায় আটক করা হয়। চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার নাজমা আক্তার জানান, আহতদের বেলা ১১টা ২৫ মিনিটে জরুরি বিভাগে আনা হয়।

হাসপাতালের রেজিস্টারে গুলিবিদ্ধ হাসান জসিমের পরিচয় অজ্ঞাত হিসেবে লিপিবব্ধ করা হয়েছে। তার গলা ও শরীরের একাধিক স্থানে গুলি লেগেছে। অপর আহত হাসান চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার শান্তির হাট গ্রামের মৃত হোসাইন মিয়ার ছেলে। খবর পেয়ে কুমিল্লার পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেন, ডিবি, পিবিআই ও র্যাব কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল এবং চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স যান।

পরে দুপুর দেড়টার দিকে সেখান থেকে চোখ বেঁধে কড়া পুলিশ প্রহরায় গুলিবিদ্ধ মারাত্মক আহত জহির প্রকাশে জসিমকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

চান্দিনা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছির উদ্দিন মৃধা জানান, স্থানীয়দের সহায়তায় থানা ও হাইওয়ে পুলিশ খাদঘর এলাকা থেকে দুই জেএমবি সদস্যকে আটক করার পর তারা বার বার ‘আল্লাহ আকবর’ ধ্বনি উচ্চারণ করে এবং ঘটনাস্থলে পুলিশের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের আসতে বলে।’ ঘটনাস্থল থেকে ফিরে কুমিল্লা পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের জানান, বাসে তল্লাশিকালে জেএমবি সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ করে।

এসময় পুলিশ আত্মরক্ষায় গুলি চালালে জহির নামের একজন জেএমবি সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং অপর আহত হাসানকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

Comments

comments