নাঙ্গলকোটে অভিনব কায়দায় শিশু অপহরনের ২৪ ঘন্টা মধ্যে উদ্ধার

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার বাঙ্গড্ডা ইউনিয়নের পরিকোট গ্রাম থেকে অপহৃত হওয়া মো. আবদুল্লাহ (২মাস ১০দিন) নামের শিশুটিকে ২৪ ঘন্টা পর উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বুধবার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাতিসা গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। আবদুল্লাহ ওই গ্রামের নুরুল আমিনের ছেলে। এ সময় তাঁকে চুরি করে নিয়ে যাওয়া খুকি বেগমকেও গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার ছাতিয়ানি গ্রামের ফটিক মিয়ার মেয়ে খুকি বেগম (৩০) নুরুল আমিনের বাড়ীতে এসে তাঁর স্ত্রী তানিয়াকে সরকারীভাবে আব্দুল্লাহকে শিশু ভাতা পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেয়। এরপর খুকি বেগম শিশুটির মা তানিয়াকে নিয়ে বাঙ্গড্ডা বাজারের পালকী ষ্টুডিওতে ফটো তোলার জন্য নিয়ে যায়। সেখানে শিশুটির ছবি তোলার পর শিশুটির মাকে ষ্টুডিওর ভিতরে বসিয়ে বলেন, আপনি ছবি তোলেন। আমি বাহিরে আপনার শিশুকে নিয়ে অপেক্ষা করছি।

পরবর্তীতে শিশুটির মা ছবি তোলার পর ষ্টুডিওর বাহিরে এসে দেখে শিশু আব্দুল্লাহকে নিয়ে অপহরনকারী খুকি পালিয়ে গেছে। পরে বিভিন্নস্থানে খোঁজাখোজির পর তাকে কোথাও না পেয়ে শিশুটির চাচা রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে নাঙ্গলকোট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

তাৎক্ষনিক পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যে চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাতিসা গ্রামের হামিদ তালুকদার বাড়ী থেকে তাঁর ভাড়াটিয়া অপরহনকারী খুকিমনি ও শিশু আব্দুল্লাকে উদ্ধার করে নাঙ্গলকোট থানায় নিয়ে আসে। পরে তাকে তাঁর মা তানিয়ার কাছে ফেরত দেয় পুলিশ।

এ ব্যাপারে নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আইয়ুব জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করে অভিযানে নেমে পড়ি। সর্বশেষ শিশুটিকে চৌদ্দগ্রামের বাতিসা থেকে উদ্ধার করতে সক্ষম হই এবং অপরহনকারী খুকি মনিকে গ্রেফতার করি। এ ঘটনায় থানায় মানব পাচার আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Comments

comments