যে ভাবে কুসিক নির্বাচনে মনোনয়ন পেলেন আঞ্জুম সুলতানা সীমা

সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মনোনয়ন পান বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ আফজল কণ্যা সাবেক প্যানেল মেয়র ও কুমিল্লা মর্ডাণ স্কুলের প্রধান শিক্ষক আঞ্জুম সুলতানা সীমা।

আঞ্জুম সুলতানা সীমার মনোনয়নের সময় গণভবনে সে দিন কি ঘটেছিল কে কি বলেছিল এমন কি প্রধান মন্ত্রীর মন্তব্যওবা কি ছিল তা জানার ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে পাঠকের।

পাঠকের চাহিদার কথা বিবেচনা করে বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সদস্যেও সাথে কথা বলে জানা গেল নেপথ্যেও সে কথা মালা।


২৬ ফেব্রুয়ারি  রোববার।ঘড়ির কাটা তখন রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ।  কুমিল্লা  জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আফজাল খাঁনের ছেলে এফবিসিসিআই পরিচালক মাসুদ পারভেজ খান ইমরানকে ফোন করে বাংলাদেশ আওয়ামী  লীগের সাংগঠনিকসম্পাদক এনামুল হক শামীম ।

জানতে চান, তোমরা কোথায় ?  গনভবনে আসতে কতক্ষন লাগবে । তখন ইমরান খাঁন পিতা আফজাল খাঁন, বড় বোন আঞ্জুম সুলতানা সীমা সহ  আরো  কয়েকজন মিলে  সংসদ ভবনের সামনে চটপটি খাচ্ছিলেন ।

১০ মিনিটের  মধ্যেই উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা নিয়ে  গনভবনে প্রবেশ করেন ইমরান খান ও আঞ্জুম সুলতানা সীমা ? গিয়ে দেখেন দলের আরেক প্রার্থী  মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা নুর উর রহমান তানিম সেখানে আগেই আছেন। 

ভিতরে প্রবেশ করতেই  কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম সীমাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন,  কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন আপনার হয়েছে। 

এ সময় প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ সেলিম এসে বলেন,  তোমরা এত দেরী কেন এলে। নেত্রী বসে আছে। তারাতারি ভিতরে যাও। গণভবনে নূর উর রহমান মাহমুদ তানিম আঞ্জুম সুলতানা সীমা এক সাথে প্রবেশ করেন এর পর করেন ইমরান খান সহ অন্যান্যরা।

প্রধান মন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার  সামনে গিয়েই আঞ্জুম সুলতানা সীমা ও নূর উর রহমান মাহমুদ প্রধান মন্ত্রীর পা ছুঁয়ে সালাম করেন।

এ সময়  প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা  আঞ্জুম সুলতানা সীমাকে বলেন নমিনেশন দিলাম।  যাও সবাইকে নিয়ে কাজ করে জয় এনে দাও ।

এসময়  দলের সাধারণ সম্পাদক ও যোগাযোগ মন্ত্রী  ওবায়দুল কাদের নূও উর রহমান মাহমুদ তানিমকে দেখিয়ে প্রধান মন্ত্রীকে বলেন, আপা তানিমের কিন্ত বিশাল কর্মী বাহিনী আছে॥

এর  উত্তরে প্রধান মন্ত্রী তানিমকে উদ্দেশ্যে করে বলেন,   এবার দলের জন্য কাজ করবে তো । গেল বার বিদ্রোহী হয়ে নির্বাচন করে  সাক্কুকে পাস করিয়ে আওয়ামীলীগের জন্য কি ফল এনেছ।

এতদিন দলের বাহিরে ছিলো।  এবার দলের হয়ে কাজ করো। ভবিষ্যতে দেখা যাবে। এ সময় যুগ্ন সম্পাদক ডা. দীপু মনি এমপি বলেন, আপা তানিম ঠিক আছে, দলের জন্য কাজ করবে।

গনভবন সুত্রে জানা যায়, পরে  প্রধানমন্ত্রী শিল্প মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ কে বলেন আপনি সংসদ সদস্য বাহার কে ফোন দেন সে যদি এবার সীমার জন্য কাজ না করে তবে আমি আগামী সংসদ নির্বাচনের  নমিনেশন আমি সীমাকে দিবো ।

এ সময় গণভবনে উপস্থিত ছিলেন, শিল্পমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ সেলিম, কেন্দ্রীয় যুগ্ন সম্পাদক ডা. দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, কেন্দ্রীয় সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, কেন্দ্রীয় বন  পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

 

 

তথ্যঃ কুমিল্লার জমিন

Comments

comments